এফএম রেডিওর মাধ্যমে কাশ্মীরে সংকেত পাঠাচ্ছে পাকিস্তান

এফএম রেডিওর মাধ্যমে কাশ্মীরে সংকেত পাঠাচ্ছে পাকিস্তান

অবরুদ্ধ কাশ্মীরে এফএম রেডিওর মাধ্যমে সংকেত পাঠিয়ে যোগাযোগ করছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। কাশ্মীরের সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোকে এর মাধ্যমে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জন্য তৈরি করছে তারা। সম্প্রতি ভারতীয় গোয়েন্দা বাহিনীর দেয়া এক রিপোর্টে এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, আজাদ কাশ্মীরের কাছে লাইন অব কন্ট্রোলে (এলওসি) এফএম স্টেশন স্থাপন করেছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীত ‘কওমী তারানা’র মাধ্যমেই সংকেতগুলো পাঠানো হচ্ছে জইশ-ই-মুহম্মদ, লস্কর-ই-তাইয়্যেবা এবং আল বদর নামক সশস্ত্র সংগঠনগুলোর কাছে।

এই সংগঠনগুলোর মাধ্যমে পাকিস্তান জম্মু-কাশ্মীরে নাশকতা সৃষ্টি করতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো।

৩৭০ ধারা বিলুপ্তিকে কেন্দ্র করে কাশ্মীরের টেলিফোন, মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়ার সপ্তাহ খানেকের মধ্যেই পাকিস্তান সেনাবাহিনী এই যোগাযোগ স্থাপন করতে সক্ষম হয়।

জম্মু-কাশ্মীরে সহযোগীদের কাছে বার্তা পাঠাতে পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীতটি এমএফ রেডিওর মাধ্যমে খুব সক্রিয়ভাবে ব্যবহার করছে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ভারতীয় গোয়েন্দাদের ধারণা, উচ্চ ক্ষমতার কম্পাংকের (ভিএইচএফ) রেডিং স্টেশন থেকে সংকেতগুলো ভারতের দিকের লাইন অব কন্ট্রোল’র কাছে পাঠানো হচ্ছিল। যে সংকেতগুলোই জইশ-ই-মুহাম্মদ, লস্কর-ই-তাইয়্যেবা এবং আল বদর ব্যবহার করে তাদের জম্মু-কাশ্মীরে যোগাযোগ করছিল।