‘কাশ্মির বর্তমান বিশ্বের নতুন কারবালা’

‘কাশ্মির বর্তমান বিশ্বের নতুন কারবালা’

আজ পবিত্র আশুরা। কারবালার ময়দানে শোকাবহ ঘটনাবহুল এ দিনটি মুসলমানদের কাছে ধর্মীয়ভাবে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। এমন পবিত্র দিনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তথ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারী ড. ফিরদৌস আশিক আওয়ান বলেছেন, ‘ভারত অধিকৃত কাশ্মির এখন কারবালা ময়দানে পরিণত হয়েছে।’

মঙ্গলবার শিয়ালকোটে শুহাদায়ে কারবালা কনফারেন্সে অংশ নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তথ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারী বলেন, ‘ইরাকের কারবালায় হৃদয়বিদারক ইতিহাসের কথা আমরা জানি। ভারত অধিকৃত কাশ্মিরে সেই কারবালার অবস্থা তৈরি হয়েছে। সেখানে যেভাবে দমন নিপীড়ন হচ্ছে তাতে কাশ্মিরই এখন বিশ্বের নতুন কারবালা।’

ড. ফিরদৌস আশিক আওয়ান বলেন, ‘অন্যায়ের সামনে মাথানত না করাই হলো কারবালার শিক্ষা। ইমাম হোসাইনের (রা.) আদর্শ থেকে শিক্ষা নিয়ে সকল প্রকার জুলুম-অন্যায়-অবিচার প্রতিহত করতে হবে।’

তিনি ভারতের মোদি সরকারকে ফেরাউনের সঙ্গে তুলনা করেন। কাশ্মিরের বর্তমান অবরুদ্ধ পরিস্থিতিকে তিনি কারবালা সংকটের সঙ্গে তুলনা করে ফিরদৌস আশিক বলেন, ‘ভারতের ফেরাউন সরকার উপত্যকাটিকে গোটা বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। কাশ্মিরী জনগণ হোসাইনি প্রেরণায় উজ্জীবিত। তারা ভারতের জালিম সরকারকে বুঝিয়ে দিয়েছে, সত্য কখনও মিথ্যার সামনে মাথানত করেনা।’

ইমরান খানের তথ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারী বলেন, ‘কাশ্মিরী জনগণের সকল অধিকার কেড়ে নিয়েছে ভারতের হিন্দুত্ববাদী সরকার। সারাবিশ্বেই আজ পবিত্র আশুরা পালিত হয়েছে। কিন্তু কাশ্মিরী জনগণ এই ধর্মীয় স্বাধীনতাটুকুও পায়নি। বন্দুক আর গোলাবারুদ দিয়ে ভারত সকরার একটি বিশাল অঞ্চলের কয়েক কোটি জনগোষ্ঠীকে অবরুদ্ধ করে রেখেছে।’