মোটা মানুষেরাই বেশি সৎ এবং সুন্দর মনের হয়

মোটা মানুষেরাই বেশি সৎ এবং সুন্দর মনের হয়

স্থুলকায় দেহ নিয়ে বিপাকে পড়েনি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। পরিবারের সদস্যদের থেকে শুরু করে কাছের বন্ধুদের খোঁচা, বাঁকা দৃষ্টি এসব সয়েই জীবন কাটিয়ে দিতে হয় স্থুল দেহের মানুষটিকে। এসবের মধ্যেই দারুণ খবর হলো, নতুন এক গবেষণায় স্থুলদেহীদের ব্যাপারে একটি ইতিবাচক বিষয় প্রমাণিত হয়েছে।

সম্প্রতি এক গবেষণা প্রতিবেদনে জার্মান গবেষকরা জানিয়েছেন, ক্ষীণ দেহের মানুষের তুলনায় স্থূলকায় মানুষ অনেক বেশি সৎ এবং নমনীয় স্বভাবের হয়। স্থুল দেহের মানুষের মন অনেক বেশি ভালো-পরিচ্ছন্ন এবং সুন্দর হয়।

২০ জন স্থূলকায় মানুষ এবং ২০ জন ছিপছিপে গড়নের মানুষের উপর জার্মান গবেষকরা পরীক্ষাটি চালান। গবেষণার সুবিধার্থে একটি খেলার আয়োজন করা হয়েছিলো তাদের জন্য। যেখানে অর্থ প্রদানের মত অনৈতিক প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল খেলোয়ারদের। দেখা গেছে, অর্থের ব্যাপারে ছিপছিপে গড়নের মানুষেরা ‘সৎ’ সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। এক্ষেত্রে স্থূলকায়রাই অর্থের ব্যাপারে সৎ ও নৈতিক গুণের পরিচয় দিয়েছেন।

মেট্রো ইউকেতে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে ওই গবেষকরা জানান, অর্থ সম্পর্কিত সিদ্ধান্ত গ্রহণের একটি খেলায় ওজন এবং শরীরের গ্লুকোজের পরিমাণ, দুটোই পরিমাপ করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে, মোটা মানুষের শারীরিক গঠন তাদের মানসিকতায় এমন এক আশ্চর্য প্রভাব তৈরী করে, যাতে করে তারা সৎ-সুন্দর ও সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে উদ্ধুদ্ধ হয়।