বমি করতে গিয়ে দুইভাগ হল যুবতীর মাথার খুলি

বমি করতে গিয়ে দুইভাগ হল যুবতীর মাথার খুলি

বসে ওঠার পর বমির বেগ পেল যুবতীর। এরপর চলন্ত বাস থেকে জানালা দিয়ে বমি করার জন্য মুখ বের করলেন। এতেই কাল হল তার। বমি করার সময় বিদ্যুতের খুঁটির ধাক্কায় মৃত্যু হল যুবতীর।

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুর্শিদাবাদ জেলার লালবাগে। মৃতের নাম ভানু মণ্ডল। তার বয়স ২৪ বছর।

জানা গেছে, ওই যুবতীর বাড়ি জিয়াগঞ্জে। লালবাগ হাসপাতাল চত্বরে ফল বিক্রি করতেন তিনি। আজও ভানু মণ্ডল জিয়াগঞ্জ থেকে বহরমপুরগামী একটি বেসরকারি বাসে ওঠেন।

কিন্তু বাসে ওঠার পর থেকেই তাঁর শারীরিক সমস্যা হচ্ছিল। এরপর বাসটি লালবাগে আসার পথে নাকুরতলায় এলাকায় বাসের জানালা দিয়ে মাথা বের করে বমি করতে যান ভানু মণ্ডল। আর তখনই তাঁর মাথার সঙ্গে রাস্তার পাশের বিদ্যুতের খুঁটির সজোরে ধাক্কা লাগে।

ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই ওই যুবতীর খুলি দু’ভাগ হয়ে যায়। রাস্তায় ছিটকে পড়ে একাংশ। রক্তে ভেসে যায় বাস ও রাস্তা।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে লালবাগ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

ঘটনাস্থলেই আটক করা হয় বাস চালককে। তাঁকে ধরে মারধর শুরু করেন স্থানীয়রা। শেষে সেখান থেকে চম্পট দেয় বাস চালক।