কীভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে দাঁত সাদা করবেন?

কীভাবে প্রাকৃতিক উপায়ে দাঁত সাদা করবেন?

কথায় বলে মুক্তোর মতো হাসি। কিন্তু হাসতে গেলে যদি দাঁতের কালো ছোপ চোখে পড়ে যায় তা ভেবে অনেকে মন খুলে হাসতেও পারেন না। নানা কারণে দাঁতে কালো ছোপ পড়তে পারে। ঝকঝকে দুধ সাদা দাঁতের জন্য রাসায়নিক ভর্তি পেস্টের শরণাপন্ন হই আমরা। কিন্তু প্রাকৃতিক উপায়েই এর সমাধান সম্ভব তা জানেন না অনেকেই। কোনওরকম ক্ষতি না করে দাঁত সুন্দর করে তোলার উপায় জেনে নিন আজকেই।

লেবু: লেবুতে থাকে সাইট্রিক অ্যাসিড। লেবুতে থাকা এই উপাদান দাঁত পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। ঝকঝকে সাদা দাঁত পেতে এক টুকরো লেবু নিয়ে মিনিট পাঁচেক ঘষলে দাঁতের উজ্জ্বলতা বাড়বে। পাশাপাশি অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই দাঁতের কালোভাবও দূর হয়ে যাবে।

কলা: এক্ষেত্রে অবশ্য প্রয়োজন কলার খোসার। কলা খেয়ে খোসা ডাস্টবিনে না ফেলে দাঁত সাদা করার কাজে লাগাতেই পারেন। খোসার ভেতরের দিকের অংশ দাঁতে ঘষে নিন। কিছুদিন এটা করলেই প্রাণখোলা হাসি হাসতে আর বাধা থাকবে না।

স্ট্রবেরি: স্ট্রবেরিতে থাকে ম্যালিক অ্যাসিড নামক এরধরনের এনজাইম। এই এনজাইম দাঁতের কালো বা হলদেভাব দূর করতে সাহায্য করে। এত দামি ফল দাঁতে ঘষার প্রয়োজন পড়বে না। নিয়মিত স্ট্রবেরি খাওয়ার অভ্যেস করলেই দাঁত হয়ে উঠবে ঝকঝকে।

নারকেল তেল: শুনলে একটু অবাক লাগলেও চুল ছাড়াও দাঁতের সুস্থতার জন্যও নারকেল তেলের প্রয়োজন। মুখে একটু নারকেল তেল নিয়ে কুলকুচি করে ফেলে দিন। এবার মুখ ভাল করে ধুয়ে ব্রাশ করে নিন। প্রতিদিন এই অভ্যেস রাখলে ধীরে ধীরে সাদাভাব আসবে দাঁতে।

মাশরুম: নিয়মিত মাশরুমে মুখের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হয়। পাশাপাশি দাঁতে ডেন্টাল প্লাক হতে বাধা দেয় মাশরুম। এতে দাঁত সাদা থাকে।

বেকিং সোডা: বেকিং সোডা অনেক কিছু পরিষ্কার করতে ব্যবহৃত হয়। বেকিং সোডাকে দাঁত মাজার কাজেও ব্যবহার করা যেতে পারে। সকালে পেস্টের পরিবর্তে বেকিং সোডা ব্রাশে নিয়ে দাঁত মাজলে সুফল পাওয়া যাবে।

গ্রিন টি: এতে থাতে প্রচুর ফ্লোরাইড। যা দাঁতে হলদেভাব জমতে দেয় না। নিয়মিত গ্রিন-টি পান করুন আর দাঁত ঝকঝকে রাখুন।

অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার: অ্যাপেল সাইডার ভিনিগারে থাকে ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসকারী উপাদান। দাঁতের ভেতরের অংশ থেকে ব্যাকটেরিয়া দূর করলে দাঁত পরিষ্কার ও উজ্জ্বল থাকে।

কয়লা: নিশ্চয় অবাক হচ্ছেন। অবাক হওয়ারই কথা। দাঁতের উজ্জ্বলতায় নিকষ কালো কয়লার কী কাজ থাকতে পারে সেটা ভাবারই বিষয়। কয়লা আজকাল যেখানে সেখানে পাবেন না। তাই বেশি না ভেবে চারকোল যুক্ত পেস্ট ব্যবহার করুন। দাঁত হয়ে উঠবে মুক্তোর মতো।

লবণ: এখন প্রায় সব টুথপেস্টেই লবণ থাকে। তাহলেও সকালে ব্রাশ করার পর লবণ দিয়ে আরও একবার ব্রাশ করে নিন। এতে দাঁত সাদা করার প্রাকৃতিক উপাদান থাকে।