প্রেমিকের মোটরসাইকেলে ঘুরতে যাওয়াই কাল হল স্কুল ছাত্রী আশার

প্রেমিকের মোটরসাইকেলে ঘুরতে যাওয়াই কাল হল স্কুল ছাত্রী আশার

কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী খুরশিদমহল ব্রিজ এলাকায় মোটর সাইকেলে প্রেমিকের সাথে ঘুরতে বেরিয়ে মোটর সাইকেল থেকে পড়ে গিয়ে আশা আক্তার (১৭) নামে এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে।
সোমবার (১৯ আগস্ট) খুরশিদমহল ব্রিজের পশ্চিম পার্শ্বে ময়মনসিংহ জেলার পাগলা থানার অংশে মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

নিহত আশা আক্তার পাকুন্দিয়া পৌর সদরের শাহাব উদ্দিনের মেয়ে। সে পাকুন্দিয়া পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

এ ঘটনায় প্রেমিক ডালিম মিয়া (২৪) কে এলাকাবাসী আটক করে হোসেনপুর থানা পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। সে পাকুন্দিয়া উপজেলারই মঙ্গলবাড়িয়া এলাকার আজিম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ, স্থানীয় ও সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, ডালিম মিয়ার সাথে স্কুল ছাত্রী আশা আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সোমবার (১৯ আগস্ট) কোচিং করতে বেরিয়ে প্রেমিক ডালিমের ডাকে সাড়া দিয়ে পরিবারের অজান্তে আশা প্রেমিকের মোটর সাইকেলে করে ঘুরতে বের হয়।

হোসেনপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী খুরশিদমহল ব্রিজ এলাকায় ঘোরাঘুরির এক পর্যায়ে ব্রিজের পশ্চিম পার্শ্বে ময়মনসিংহ জেলার পাগলা থানার অংশে মোটর সাইকেলের পেছনে থাকা আশা পড়ে যায়। এতে সে মাথায় গুরুতর আঘাত পায়।

প্রেমিক ডালিম স্কুল ছাত্রী আশাকে উদ্ধার করে ঘটনাস্থলের পার্শ্বের একটি ফার্মেসি থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হোসেনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক আশাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় আশপাশের লোকজন প্রেমিক ডালিমকে আটক করে পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ মোটর সাইকেলসহ প্রেমিক ডালিম মিয়াকে হোসেনপুর থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে হোসেনপুর থানার ওসি শেখ মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, প্রেমিক ডালিমকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। নিহত স্কুল ছাত্রীর লাশ হোসেনপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে।

ঘটনাস্থল পাগলা থানা এলাকায় হওয়ায় পাগলা থানা পুলিশ এ ব্যাপারে পরবর্তি আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলেও জানান ওসি শেখ মো. মোস্তাফিজুর রহমান।