জঙ্গলের গভীরে বিয়ার গ্রিলসের সাথে মোদিকে একজন যুবকের মত লাগছিল

জঙ্গলের গভীরে বিয়ার গ্রিলসের সাথে মোদিকে একজন যুবকের মত লাগছিল

এক অন্য নরেন্দ্র মোদিকে দেখা গেল সোমবার টিভির পর্দায়। ‘ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ডের একটি পর্বে বিয়ার গ্রিলসের সঙ্গে অ্যাডভেঞ্চারে যোগ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। সেখানেই তিনি বলেন, যদি এটাকে ছুটি বলা যায় তাহলে এটাই শেষ আঠারো বছরে তাঁর প্রথম ছুটি।

প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ব্যারাক ওবামার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিশ্বের দ্বিতীয় নেতা যাকে পৃথিবীর জনপ্রিয় একটি টিভি শো-তে দেখা গেল। ৪৫ বছর বয়সী ব্রিটিশ অ্যাডভেঞ্চারার এবং সঞ্চালক বিয়ার গ্রিলস দর্শকদের বুনো ভ্রমণের মাধ্যমে প্রকৃতির গভীরে নিয়ে যান। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে এই পর্বটি উত্তরাখন্ডের জিম করবেট ন্যাশানাল পার্ক-এ শুটিং করা হয়েছিল চলতি বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে।

প্রাণী সংরক্ষণ এবং পরিবেশগত পরিবর্তন সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির জন্য ভারতের জঙ্গলের গভীরে ঢুকে তিনি তাঁর সঙ্গী বিয়ার গ্রিলসকে বলেন, “শেষ পাঁচবছর আমি দেশের উন্নতিতে দিয়েছি যার জন্য আমি খুব আনন্দিত। যদি এটাকে ছুটি বলা যায় তাহলে শেষ আঠারো বছরে এই প্রথম ছুটি নিয়েছি।”

জঙ্গল ভ্রমণের সময় জীবনের নানা কথা উঠে আসে মোদীর মুখে। শোনা যায় শৈশবের কথা। কথোপকথনের মধ্যে বিয়ার গ্রিলস মোদীকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তাঁর আকাঙ্খার কথা জিজ্ঞাসা করেন। এই প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী জানান, “আমি ভাবিনা আমি কে। আমি শুধু জানি আমাকে কাজ করতে হবে। এটা আমার দায়িত্ব।” তিনি তাঁর বক্তব্যে আরও বলেন, সবসময় সবরকমভাবে তিনি চেষ্টা করেছেন মানুষের স্বপ্নকে তাঁর নিজের স্বপ্ন ভাবতে।

সোমবার রাত ৯ টায় ডিসকভারি চ্যানেলের মাধ্যমে ১৮০ টি দেশের মানুষ একসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অজানা দিকটি দেখতে পেয়েছেন। যখন তিনি প্রাণী সংরক্ষণ এবং পরিবেশগত পরিবর্তন সম্পর্কে সচেতনতা তৈরির জন্য ভারতের জঙ্গলের গভীরেও প্রবেশ করেছেন তখন তাঁকে একজন তরতাজা যুবকের মত লাগছিল যিনি শান্তভাবে জঙ্গলে সময় কাটাচ্ছিলেন। আলাস্কায় ওবামার সঙ্গে ২০১৬ সালের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথেই এই বিশেষ পর্বের শ্যুটিং করেন বিয়ার গ্রিলস।