দেশে বেড়াতে এসে ডেঙ্গুতে প্রাণ গেল ইতালি প্রবাসী নারীর

দেশে বেড়াতে এসে ডেঙ্গুতে প্রাণ গেল ইতালি প্রবাসী নারীর

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি বাড়ছেই। এ যেন ক্রিকেট খেলার রেকর্ড ভাঙ্গার গল্পের মতো। ক্রিকেটে রানে বা উইকেটে একজনের রেকর্ড ভেঙ্গে কেউ রেকর্ড গড়লে তা দর্শকদের জন্য আনন্দের খবর হয়; কিন্তু ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির রেকর্ড সবার জন্য বেদনার। এই রেকর্ড নাগরিকের জন্য আতঙ্ক ও উদ্বেগের।

এদিকে এই ডেঙ্গু জ্বরে আকান্ত হয়ে প্রতিদিনই প্রাণ যাচ্ছে কারো না কারো। এবার সেই তালিকায় যোগ হলো আরও একটি গৃহবুধুর নাম, তিনি হাফসা লিপি (৩৪)। থাকেন ইতালিতে। সম্প্রতি স্বামী-সন্তান নিয়ে দেশে বেড়াতে এসে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এই নারী।

হাফসা লিপি চার দিন ধরে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে আইসিইউতে থাকা অবস্থায় সোমবার রাতে তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিচালক জসিমউদ্দিন খান।

হাফসার স্বামী সর্দার আব্দুল সাত্তার তরুণ (৩৬) নিজেও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিলেন। দুই সন্তান অলি (১২) ও আয়ানকে (৬) নিয়ে সপ্তাহ তিনেক আগে দেশে এসে কলাবাগানে উঠেছিলেন তারা।

সাত্তারের বড় বোন ডা. নুরুন্নাহার জানান, ঢাকায় আসার পরপরই জ্বরে পড়েন তার ভাই।

“ওর অসুস্থতার মধ্যেই হাফসার জ্বর আসে। গত ২৮ জুলাই এনএস১ পরীক্ষা করা হলে ডেঙ্গু ধরা পড়ে। কিন্তু আমার ভাই বাসায় অসুস্থ বলে হাফসা স্বামীর সঙ্গে বাসায় থাকার সিদ্ধান্ত নেয়।

“কিন্তু শুক্রবার সকালে হঠাৎ করে ওর অবস্থা খারাপের দিকে গেলে আমরা ওকে হাসপাতালে নিয়ে যাই। ওইদিনই ওকে আইসিইউতে নেওয়া হয়।”

মঙ্গলবার সকালে হাফসার মৃতদেহ নিয়ে শরীয়তপুরে তার শ্বশুর বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা হন স্বজনরা। শরীয়পুরের ভেদরগঞ্জ থানার সর্দার বাড়িতে পারিবারিক কবরস্থানে হাফসাকে দাফন করা হবে বলে জানান নুরুন্নাহার।