মশা মারতেও রুল দিতে হয়, বিশ্বে এমন নজির নেই: হাইকোর্ট

মশা মারতেও রুল দিতে হয়, বিশ্বে এমন নজির নেই: হাইকোর্ট

ঢাকা মহানগরীতে ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়ার মত রোগের বিস্তার রোধে মশা নির্মূলে দুই সিটি করপোরেশনের নেওয়া পদক্ষেপে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে হাইকোর্ট।

পরিস্থিতি নিয়ে আক্ষেপ করে সোমবার (২২ জুলাই) বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর হাইকোর্ট বেঞ্চ বলেন, মশা মারতেও আমাদের রুল দিতে হয়, বিশ্বে এমন নজির নেই, অথচ আমাদের দিতে হয়।

এ সময় আদালত শুধু জনগণকে সচেতন না করে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের মশা নিধনে কাজ করতে বলেন।

পরে আদালত মশা নির্মূলের কার্যক্রম সম্পর্কে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকেও তলব করে আদেশ দেন। আদালতে দুই সিটি করপোরেশনের প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সায়েরা ফাইরুজ।

পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন,‘ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধ বা নিয়ন্ত্রণে এডিসসহ মশা নির্মূলে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন কি কি পদক্ষেপ নিয়েছে সে বিষয়ে দু’টি বাস্তবায়ন প্রতিবেদন দিয়েছিলাম। কোর্ট আমাদের প্রতিবেদনে সন্তুষ্ট হতে পারেননি। এজন্য সিটি করপোরেশনের চিফ হেলথ অফিসারকে (প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা) বৃহস্পতিবার তলব করেছেন।’