সোনাগাজীতে দুই সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

সোনাগাজীতে দুই সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

ফেনীর সোনাগাজীতে দুই সন্তানের জননী এক নারীকে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় জড়িত নুর আলম নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সোনাগাজী উপজেলার চর দরবেশ ইউনিয়নের আদর্শগ্রামের দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকার এক বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ, স্থানীয় লোকজন ও পরিবার সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূ আদর্শগ্রাম এলাকার এক প্রবাসীর স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী। দীর্ঘদিন যাবত একই এলাকার নুর আলম, মো. আপেল ও মোশারফ হোসেন নামে তিন বখাটে যুবক তাকে বিভিন্ন ভাবে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করে আসছিল।

তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে তাকে অপহরণ করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বখাটেরা। বিষয়টি ওই গৃহবধূ তার পরিবারের সদস্যদেরকে জানায়। তারা বিষয়টি সম্পর্কে বখাটেদের পরিবারকে অবহিত করে। কিন্তু এতে কোন লাভ হয়নি। এই নিয়ে স্থানীয় ভাবে সালিশ-বৈঠকও হয়েছিল। গত মঙ্গলবার রাতে প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দিয়ে ওই গৃহবধূ ঘর থেকে বের হলে পূর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তিন বখাটে পেছন দিক থেকে কাপড় দিয়ে মুখ চেপে ধরে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে বাড়ির পাশে নিয়ে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে তার সন্তান হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে তাকে দেখতে না পেয়ে চিৎকার করলে বাড়ির লোকজন গিয়ে ওই গৃহবধূকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে।

এ ঘটনায় বুধবার (১০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ওই গৃহবধূ নিজে বাদি হয়ে নুর আলম, মোহাম্মদ আপেল ও মোশারফ হোসেনসহ তিনজনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

গতকাল (১৬ এপ্রিল) সকালে আদর্শগ্রাম কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দুপুরে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত একজনকে গ্রেপ্তার করেন। সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন গ্রেপ্তার আসামীকে বৃহস্পতিবার আদালতে উপস্থাপন করা হবে বলে জানান।





error: Content is protected !!