১০ টাকার গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়

১০ টাকার গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়

রাজশাহীতে ১০ টাকার গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়। দাম ১৫ গুণ বেশি হলেও মানুষ গোলাপ কিনছেন প্রিয়জনের জন্য।

আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে রাজশাহীর সাহেববাজার এলাকার ফুলের দোকানগুলো বাহারি গোলাপ আর নানা ফুলে সাজানো হয়েছে বিক্রির জন্য।

ক্রেতারা বলছেন, দিবসটি ভালোবাসার। তাই দাম বেশি চাওয়া হলেও তারা ফুল কিনতে কৃপণতা করছেন না।

বিক্রেতারা বলছেন, বসন্ত আর ভালোবাসা দিবসকে কেন্দ্র করে ফুলের পাইকারি দাম বেড়ে গেছে। তাই তাদেরকে বেশি দামে গোলাপ বিক্রি করতে হচ্ছে।

গোলাপ কিনতে আসা মেডিকেল শিক্ষার্থী আরজুমান বলেন, তিন দিন আগে যে ফুলের দাম ছিল ৩০ টাকা সেটি আজকে বিক্রি হচ্ছে ১৫০ টাকায়। ফুলের দাম রাতারাতি বেড়ে যাওয়ার কারণে পছন্দের ফুল কিনতে পারছি না।

আরেক মেডিকেল শিক্ষার্থী সেলিনা বলেন, ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ম্যাডামকে গোলাপ দিয়ে শুভেচ্ছা জানাবো। তবে দাম বেশি হওয়ায় চাহিদা মতো ফুল কিনতে পারছি না।

একটি গোলাপ সাধারণত ১০ টাকায় বিক্রি হয়। কিন্তু বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা যায়, গোলাপকে ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ভাগ করেছে।

গোলাপের সর্বনিম্ন দাম চাওয়া হচ্ছে ৩০ টাকা। আর নেট দিয়ে পেচানো গোলাপ বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১৫০ টাকায়। দামি এই গোলাপগুলোকে বলা হচ্ছে চাইনিজ গোলাপ।

পুস্প মডার্ন দোকানের মালিক উজ্জল হোসেন বলেন, আগে যশোরের বাগান মালিকদের কাছে যে ফুল ১০ টাকায় কিনতাম, সেটি এখন ২৫ টাকায় কিনতে হচ্ছে।

গাড়ি ভাড়া ও যাবতীয় খরচসহ আমাদের ফুল বিক্রি করতে হচ্ছে ৫০ টাকায়। আর চাইনিজ জাতের গোলাপ বাগান মালিকদের কাছ থেকে

আগে ২০-২৫ টাকায় কিনতাম, সেটি এখন ৫০-৬০ টাকায় বাগান থেকে কিনতে হচ্ছে। তাই লাল চাইনিজ রঙয়ের গোলাপ ১০০ টাকায় আর সাদা গোলাপ ১৫০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে।