প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টে হিরো আলম

প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টে হিরো আলম

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে দাখিল করা মনোনয়নপত্র রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশন থেকে দুদফা বাতিল হওয়ার পর প্রার্থিতা ফিরে পেতে হাইকোর্টে রিট করেছেন আলোচিত মডেল-অভিনেতা আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলম।

রোববার দুপুরে ইসির সিদ্ধান্তের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হিরো আলমের পক্ষে তার আইনজীবী কাওসার আলী হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি করেন। আজ বিকালে এই রিটের ওপর হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী কাওসার আলী।

তিনি বলেন, উচ্চ আদালতের প্রতি আমাদের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমরা মনে করি, হিরো আলম নির্বাচনের সুযোগ পাবেন। নির্বাচনে প্রার্থিতা পেতেই এই রিটটি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন হিরো আলম। মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

কিন্তু মনোনয়নপত্রে সাধারণ ভোটারদের স্বাক্ষরে গড়মিল থাকার কারণে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করে বগুড়া জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ফয়েজ আহমেদ। পরে বাতিল হওয়া মনোনয়নপত্র ফিরে পেতে গত ০৩ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছিলেন হিরো আলম।

এরই প্রেক্ষিতে ০৬ ডিসেম্বর নির্বাচন ভবনে ৪৩ নম্বর সিরিয়ালে হিরো আলমের প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার আবেদনের শুনানি হয়। এ সময় তিনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। নিজের প্রার্থিতা পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন। তবে শুনানি শেষে নির্বাচন কমিশন তাঁর মনোনয়নপত্র অবৈধ ঘোষণা করেন।

দুদফা বাতিল হওয়ার পর এমপি পদে নির্বাচন করতে অবশেষে হাইকোর্টে আপিল করলেন আলোচিত এ অভিনেতা।