এইমাত্র পাওয়া খবর,অবশেষে তাহলে নির্বাচনে যাচ্ছে বিএনপি

এইমাত্র পাওয়া খবর,অবশেষে তাহলে নির্বাচনে যাচ্ছে বিএনপি

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) রাতে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত স্থায়ী কমিটির সক্রিয় সদস্যদের নিয়মিত বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শনিবার (১০ নভেম্বর) দিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য বৈঠকে স্থায়ী কমিটি নির্বাচনি পরিকল্পনা তৈরি করবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির প্রভাবশালী কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এই তথ্য জানা গেছে।একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা। বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে তিনি তফসিল ঘোষণা করেন।

বিএনপি তফসিল ঘোষণার সমালোচনা করলেও নির্বাচনি ট্রেন কোনোভাবেই মিস করতে চায় না দলটি।স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য নির্বাচনে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করলেও নিজেরা উদ্ধৃত হতে চাননি।

প্রত্যেকের ভাষ্য, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচন বয়কট করলেও একাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার লড়াইয়ে থাকবে বিএনপি। এক্ষেত্রে শনিবার গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দিনব্যাপী আলোচনা করে দলের নির্বাচনি পরিকল্পনা,

ইশতেহার ও দায়িত্ব বণ্টনের বিষয়টি চূড়ান্ত করবেন নীতি-নির্ধারকরা।স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য জানান, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২৩ ডিসেম্বরের নির্বাচনের জন্যই প্রস্তুতি নেবে বিএনপি। একইসঙ্গে এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্তভাবে ঘোষণার আগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে এর সম্ভাব্য কৌশল, পরবর্তী নীতি নির্ধারণ করবে বিএনপি।

এক্ষেত্রে ফ্রন্টের নেতাদের অভিমত অনুযায়ী নির্বাচনি কৌশল ঠিক করবে দলটি।এই বিষয়ে জানতে চাইলে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘নির্বাচন করতে চায়। কিন্তু সব দলকে নিয়ে নির্বাচন করা সরকার ও ইসির দায়িত্ব। কিন্তু তারা প্রতিপক্ষ রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সঠিক আচরণ করছে না।

তফসিল ঘোষণা দুই-তিনদিন পরও করা যেতো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আলোচনা করবেন না—এই আলোচনা তিনি ৫ বছর করেছেন। যদিও শেষপর্যন্ত তিনি রাজি হয়েছেন।ঐক্যফ্রন্ট যে প্রস্তাব দিয়েছে, তা সংবিধানের বাইরে নয়।

যেমন, নির্বাচনকালীন সরকার ছিল, আওয়ামী লীগই পরিবর্তন করেছে।’ইতোমধ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাতদফার কোনও দাবিই সরকারের পক্ষ থেকে মানা হয়নি। এক্ষেত্রে নির্বাচন পেছানোর দাবি কতটা মানবে, এমন প্রশ্নে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘নির্বাচন প্রশ্নে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে কথা হবে। কথা বলার আগে কিছু বলা যাচ্ছে না।’