২৩৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে ১৮টি মডেল মসজিদ

২৩৬ কোটি টাকা ব্যয়ে কুমিল্লা সদরসহ জেলার ১৮টি উপজেলায় নির্মিত হতে যাচ্ছে ১৮টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। তবে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসের মধ্যে সকল মসজিদের কাজ শেষ হবে বলে দাবি করছেন ইসলামি ফাউন্ডেশন। ইতিমধ্যে জেলা সদর, দাউদকান্দি, চান্দিনা, নাঙ্গলকোট, বুড়িচং, আদর্শ সদর ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় নির্মাণ কাজ চলছে। ইসলামী সংস্কৃতির বিকাশে মসজিদগুলো ভালো ভ‚মিকা রাখবে বলেও আশা প্রকাশ করছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্তৃপক্ষ। ইসলামি ফাউন্ডেশন কুমিল্লার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এগুলো স্থাপনে মোট ২৩৫ কোটি ৮ লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয় হবে। ইতিমধ্যে এ লক্ষ্যে জেলা সদর ও উপজেলায় জমি অধিগ্রহণের কাজ শুরু হয়েছে। বাকিগুলোতে অধিগ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। ২০১৮ সালে হাতে নেয়া এ প্রকল্পটি ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

সূত্রটি আরও জানায়, কুমিল্লা জেলা সদর ও উপজেলা সদরসমূহে মডেল মসজিদ স্থাপন প্রকল্পের বরাদ্দের মধ্যে কুমিল্লা জেলা সদরে ১৫ কোটি ৬১ লাখ ৮১ হাজার টাকা। আদর্শ সদর উপজেলায় ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। সদর দক্ষিণে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। বরুড়ায় ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। ব্রাহ্মণপাড়ায় ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। বুড়িচংয়ে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। চান্দিনায় ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। চৌদ্দগ্রামে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা।

দাউদকান্দিতে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। দেবিদ্বারে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। হোমনায় ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। লাকসামে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। মুরাদনগরে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। নাঙ্গলকোটে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। মেঘনায় ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা। তিতাসে ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। মনোহরগঞ্জে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা এবং লালমাইয়ে ১২ কোটি ৬৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন কুমিল্লা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক নাজমুস সাকিব জানান, জেলা সদরে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ভবন ৪ তলা এবং উপজেলা মডেল মসজিদ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ভবন ৩ তলা বিশিষ্ট হবে। এতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের অফিস, লাইব্রেরি, বিশ্রাম কক্ষ এবং গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.