কয়লার ব্যবহার বন্ধ করছে জার্মানি

কয়লার ব্যবহার বন্ধ করছে জার্মানি

কয়লার ব্যবহার বন্ধের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে জার্মানি। দেশের কয়েকটি কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র এ বছরই বন্ধ করে দেওয়া হবে। তাছাড়া ২০৩৮ সালের মধ্যে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র সম্পূর্ণ বন্ধ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ বিষয়ে জার্মান সরকার ও কয়লা উৎপাদনকারী অঙ্গরাজ্যগুলোর মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। খবর জার্মান সংবাদ মাধ্যম ডয়েচে ভ্যালে’র

কয়লার ব্যবহার বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া অঙ্গরাজ্য চারটি হল- নর্থরাইন-ওয়েস্টফালিয়া, সাক্সনি, সাক্সনি-আনহল্ট এবং ব্রান্ডেনবুর্গ। জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল সরকার ও কয়লা উৎপাদনকারী চার অঙ্গরাজ্য তাদের চুক্তির বিস্তারিত সংবাদ মাধ্যমের সামনে তুলে ধরেছেন।

পরিকল্পনা অনুযায়ী চলতি বছরই অন্তত আটটি কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হবে। কয়লার ব্যবহার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার এই প্রক্রিয়ায় সরকার ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোকে এক হাজার চারশ’ কোটি ইউরো দেবে। অন্যদিকে বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলো ক্ষতিপূরণ হিসেবে পাবে ৪৩৫ কোটি ইউরো।

তবে ক্ষতিপূরণের অর্থ ছাড়ের জন্য অবশ্যই পার্লামেন্টের অনুমোদন নিতে হবে। অনুমোদন পেলেই এই চুক্তিটি আইনে পরিণত হবে এবং তখন থেকেই কেবল আর্থিক ক্ষতিপূরণ দেওয়া শুরু হবে।

চুক্তি বিষয়ে জার্মানির পরিবেশমন্ত্রী স্ফেনিয়া শুলৎস বলেন, ‘আমরাই প্রথম দেশ যারা আইন করে শক্তির উৎস হিসেবে পরমাণু ও কয়লার ব্যবহার বন্ধ করছি। এর মাধ্যমে আমরা আন্তর্জাতিক বিশ্বকে গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দিচ্ছি।’