মসজিদে হামলার উসকানিদাতা ১৩৫ কেজি ওজনের আইএস নেতা আটক

আইএসের জ্যেষ্ঠ ধর্মীয় নেতা আবু আবদ-আল বারীকে গ্রেফতার করেছে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। আইএসের দাসত্ব, ধর্ষণ, নির্যাতন ও জাতিগত নিধনের পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ১৩৫ কেজি ওজনের এই আইএস নেতার স্থূলতার কারণে পুলিশের গাড়ির বদলে পিক-আপে করে কারাগারে নিয়ে যেতে হয়েছে। ২০১৪ সালে ইউনুস নবীর মসজিদে বোমা হামলায় উসকানি দেয়ার জন্য তাকে দায়ী করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) তাকে আটকের কথা জানিয়েছে ইরাকের নিরাপত্তা বিষয়ক গণমাধ্যম সেল। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আইএসের কথিত শরিয়া কর্মকর্তা ও মুফতি বারীকে মানসুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত ও তথ্যের ব্যাপক যথার্থতার পরেই তাকে গ্রেফতারের কথা জানিয়েছে তারা। আটক এই মুফতির নাম শিফা আল-নিমা হলেও আইএসের ভেতর তাকে আবু আবদ আল-বারী নামেই ডাকা হয়। মসুলের বিভিন্ন মসজিদে ধর্মীয় প্রচারের দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে উসকানিমূলক বক্তব্য দেয়ার

অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়া আইএসের আনুগত্য ও তাদের সঙ্গে যুক্ত হতে লোকজনকে তিনি উসকানি দিতেন। মসুল আইএসের নিয়ন্ত্রণে থাকা অবস্থায় শিশুদের উগ্রপন্থা শিক্ষা দিতে তিনি আহ্বান জানিয়ে আসছিলেন। আইএসের প্রথম সারির একজন নেতা বলা হয়ে থাকে বারীকে। বেশ কয়েকজন পণ্ডিত ও বুদ্ধিজীবীকে হত্যায় তিনি ফতোয়া দিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.